V wash কেন ব্যবহার করা হয় ও ভি ওয়াশ ব্যবহারের নিয়ম

আসসালামু আলাইকুম, V wash কেন ব্যবহার করা হয় ও ভি ওয়াশ ব্যবহারের নিয়ম পোস্টে আপনাদের স্বাগতম। আপনি নিশ্চই ভি ওয়াশ এর কাজ কি এবং ভি ওয়াশ ব্যবহার করার নিয়ম জানতে এখানে এসেছেন। 

মহিলাদের যৌনাঙ্গকে ভ্যাজাইনা বা যোনি বলা হয়। যোনি হল নমনীয় পেশী দ্বারা গঠিত একটি অঙ্গ। যোনি জরায়ুকে বাহ্যিক শরীরের সাথে সংযুক্ত করে। শরীরের অন্যান্য অংশের মতো যোনি স্বাস্থ্যকর ও পরিষ্কার রাখা খুবই প্রয়োজনীয়।

V wash কেন ব্যবহার করা হয় ও ভি ওয়াশ ব্যবহারের নিয়ম
V wash কেন ব্যবহার করা হয় ও ভি ওয়াশ ব্যবহারের নিয়ম
অভ্যন্তরীণ যৌনাঙ্গের সঠিক pH মাত্রা থাকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। যৌনাঙ্গের পিএইচ লেভেল ঠিক থাকলে তারা ল্যাকটিক অ্যাসিড তৈরি করে যাতে আপনাকে যৌনাঙ্গে চুলকানি, হঠাৎ স্রাব, সাদা স্রাব, দুর্গন্ধ, যৌনাঙ্গে ব্যথার মতো সমস্যায় পড়তে না হয়। যোনিপথের pH ঠিক রাখাও খুব গুরুত্বপূর্ণ কারণ যখন এটি ঘটে, তখন যোনির ত্বকও প্রাকৃতিকভাবে ল্যাকটিক অ্যাসিড তৈরি করে, যা যোনিকে সুস্থ রাখে।


ভি ওয়াশ নিয়ে বিস্তারিত

যোনিপথে সংক্রমণের কারণে শুধু নারীরাই নয় তাদের যৌন সঙ্গীরাও ঝুঁকিতে পড়তে পারে। অনেক মহিলাই যোনিপথের স্বাস্থ্যবিধির গুরুত্ব জানেন না। যোনি পরিষ্কার করার জন্য সাবান ব্যবহার করা ক্ষতিকারক হতে পারে, তাই এটি পরিষ্কার করার জন্য ভি ওয়াশ ব্যবহার করা উচিত। এই পোস্টে, আমরা আপনাকে বলতে যাচ্ছি ভি ওয়াশ কি? v wash কেন ব্যবহার করা হয় এবং v wash ব্যবহার করার নিয়ম। আসুন জেনে নিই ভি ওয়াশ সম্পর্কিত কিছু বিষয়।

ভি ওয়াশ কি? -V wash Ki?

V wash হল একটি ল্যাকটিক এসিড সমৃদ্ধ লিকুইড হাইজিন ওয়াশ প্রোডাক্ট (v wash Hygiene Wash Product) যোনি পরিষ্কার করার জন্য। এটিকে ভ্যাজাইনাল ওয়াশ, ইনটিমেট ওয়াশ বা ফেমিনাইন ওয়াশও বলা হয়।

ল্যাকটিক অ্যাসিড, টি ট্রি অয়েল ইত্যাদি প্রাকৃতিক উপাদান এটি তৈরি করতে ব্যবহার করা হয়। এটি যোনির পিএইচ স্তরের ভারসাম্য বজায় রাখে, চুলকানি, জ্বালাপোড়া, শুষ্কতা থেকে যোনিকে রক্ষা করে এবং আপনাকে সারাদিন সতেজ বোধ করতে সাহায্য করে।

v wash কেন ব্যবহার করা হয়

সাধারণত মহিলারা পানি এবং সাবান দিয়ে যোনিতে প্রয়োগ করে থাকে, তবে সাধারণ সাবানের পিএইচ লেভেল ৮-এর বেশি। মানে সাবানে ক্ষার থাকে এবং সাধারণ পানির pH মাত্রাও ৭। এই ধরনের উচ্চ পিএইচ যোনির স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর, এটি ভাল ব্যাকটেরিয়াকে মেরে ফেলে যা যোনি সুরক্ষার জন্য প্রয়োজনীয়। তাই ভি ওয়াশ ব্যবহার করুন। V Wash Plus এর ব্যবহার ভ্যাজাইনাল হাইজিনের জন্য বেশি জনপ্রিয়, এর pH 3.5 থেকে 4.5, তাই যোনি পরিষ্কার করা প্রয়োজন।

ভি ওয়াশ ব্যবহারের নিয়ম

ভি ওয়াশ ব্যবহার করতে একটু ভি ওয়াশ নিয়ে যোনিতে লাগিয়ে তারপর স্বাভাবিক পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। খেয়াল রাখতে হবে ভি ওয়াশ যোনির ভিতরে না যায় যাতে কোনো ইনফেকশন না হয়। সপ্তাহে এটি ৩ দিন ব্যবহার করবেন। তবে আপনি প্রতিদিন ব্যবহার করতে পারবেন। V Wash ব্যবহার করার কোন ক্ষতিকর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই। তবে যোনি ধোয়ার সময় যত্ন নেওয়া উচিত যাতে আপনি নিরাপদ থাকেন।

ধাপে ধাপে v wash ব্যবহার করার নিয়ম

  • ভি ওয়াশ প্লাস দিনের যেকোনো সময় প্রয়োগ করা যেতে পারে। এটি দ্রুত এবং ব্যবহার করা সহজ, আপনার তালুতে ৪-৫ ফোঁটা রেখে এবং আপনার যোনির বাইরের অংশে আলতোভাবে ম্যাসাজ করে V Wash প্রয়োগ করবে। ঠিক যেভাবে আপনারা ফেইসওয়াশ ব্যবহার করেন। 
  • লাগানোর পর ১ মিনিটের ভিতর পরিষ্কার পানি দিয়ে যোনিপথ ভালো করে ধুয়ে ফেলুন। 
  • ভি ওয়াশ পিরিয়ডের সময়ও ব্যবহার করা যেতে পারে এবং কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ফেলে না।

ভি ওয়াশ এর দাম কত?

v wash price in bangladesh: সাধারণত বাজারে পাওয়া ভি ওয়াশ বিভিন্ন দামে পাওয়া যায়।

লিকুইড ভি ওয়াশ এর দাম ১৮০ টাকা। বিভিন্ন দামে বিক্রেতারা এটি বিক্রি করে থাকে। তবে আপনি ৩০০ টাকার বেশি দিয়ে এটি কখনই ক্রয় করবেন না। অনলাইন শপ দারাজ বা ফার্মেসিতেও এটি পাওয়া যায়। 

আরও পড়ুন - 
আশা করি, V wash কেন ব্যবহার করা হয় ও ভি ওয়াশ ব্যবহারের নিয়ম পোস্ট টি হতে v wash ব্যবহার করার নিয়ম এবং ভি ওয়াশের দাম সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পেরেছেন।