লেবুর উপকারিতা ও অপকারিতা কি?

লেবুর উপকারিতা ও অপকারিতা কি(lemon benefits and side effects bangla) পোষ্টে আপনাদের স্বাগতম। গরমে যখন তীব্র দাবদাহে ক্লান্ত, ঠিক তখনই ১ গ্লাস লেবুর শরবত হলে প্রাণটা জুরিয়ে যায়। লেবুর রস খাওয়ার উপকারিতা অনেক । আজকের পোষ্টে লেবুর উপকারিতা এবং লেবুর অপকারিতা আপনাদের বলবো। 
লেবুর উপকারিতা ও অপকারিতা কি?
লেবুর উপকারিতা ও অপকারিতা কি
লেবু দিয়ে শুধু শরবত হিসেবেই নয়, ওজন কমাতেও অনেকেই সকালে লেবুর শরবত খেয়ে থাকেন। কিন্তু জানেন কি লেবুর শরবত শুধু ওজন কমানো নয়, আরও অনেক উপকার করে থাকে? তবে জেনে নিন লেবু খাওয়ার কি কি উপাকারিতা এবং অপকারিতা

লেবু রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানো থেকে শুরু করে পেট পরিষ্কার রাখার মতো প্রচুর উপকার করে। জেনে নেওয়া যাক লেবুর উপকারিতা ও অপকারিতা -

লেবুর উপকারিতা:

১। হজম শক্তি বাড়ায়ঃ শরীর হতে টক্সিন সরাতে সাহায্য করে লেবু। লেবু বদহজম, বুক জ্বালার সমস্যাও ভালো করে থাকে।

২। ক্ষত সারায়ঃ ক্ষতস্থান তাড়াতাড়ি সারিয়ৈ তুলতে লেবুর মধ্যে থাকা অ্যাবসরবিক এসিড সাহায্য করে থাকে। তরুনাস্থি, হাড়, ও টিস্যুর সতেজ রাখতেও সাহায্য করে লেবু।

৩। পাকস্থলি পরিষ্কার রাখেঃ শরীর হতে ক্ষতিকারক পদার্থ বের করতে সাহায্য করে লেবু পানি। ফলে ইউরিনেশন ভাল হয়। লিভার ভাল থাকে।

৪। PH ব্যালান্সঃ লেবু শরীরের PH ব্যালান্স সঠিক রাখতে সাহায্য করে। লেবুর মধ্যে থাকা সাইট্রিক অ্যাসিড মেটাবলিজমের পর ক্ষার হিসেবে কাজ করে। ফলে রক্তের PH ব্যালান্স বজায় থাকে।

৫। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়ঃ লেবুর মধ্যে থাকা প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন C সর্দি-কাশির সমস্যা দূর করতে অব্যর্থ। স্নায়ু ও মস্তিষ্কের ক্ষমতা বাড়ায়। ফুসফুস পরিষ্কার করে হাঁপানি সমস্যার উপশম করে।

৬। ত্বক দাগ মুক্ত রাখেঃ লেবুতে থাকা ভিটামিন C ও অন্যান্য অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট ত্বকের বলিরেখা দূর করতে সাহায্য করে। রক্ত পরিষ্কার রেখে ত্বকের দাগ ছোপ দূরে রাখে।

৭। শরীরে শক্তি বাড়িয়ে মন ভাল রাখেঃ লেবু খেলে শরীরে পজিটিভ এনার্জি বাড়ে। উৎকন্ঠা ও ডিপ্রেশন দূর করে মন ভাল রাখতে লেবু সাহায্য করে।

৮। নিশ্বাস- প্রশ্বাস তাজা রাখেঃ লেবু ফুসফুস পরিষ্কার রাখার ফলে নিশ্বাস-প্রশ্বাস ভালো হয়। লেবু পানি দিয়ে খাবার পর মুখ ধুলে ভাইরাস-ব্যাকট্যারিয়া দূর হয়ে যায়।

৯। ক্লান্তি দুর করতেঃ গরম পানিতে লেবুর রস দিয়ে খেলে শরীর হাইড্রেটেড থাকে। শরীরে ফ্লুইডের সঠিক মাত্রা বজায় রেখে ক্লান্তি, কোষ্ঠকাঠিন্য, রক্তচাপজনিত সমস্যা দূরে রাখে। ঘুম ভাল হয়।

১০। ওজন কমায়ঃ এবার বলি ওজন কমানোর ক্ষেত্রে লেবুর ভুমিকা কি? লেবুতে থাকা পেকটিন ফাইবার ক্ষিদে হ্রাস করতে সাহায্য করে। সকালে উঠে লেবু দিয়ে গরম পানি পান করুন। সারা দিন কোন খাবার খাবেন, কোন খাবারটা খাবেন না তা বেছে নিতে সাহায্য করে থাকে লেবু পানি।

লেবুর অপকারিতা:

সবকিছুরই কিছু ভালো দিক ও খারাপ দিক থাকে। অতিরিক্ত লেবুর রস পান করাও স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। তাহলে জেনে নেওয়ার যাক লেবু খাওয়ার অপকারিতা কি কি -

১। একদম খালি পেটে লেবু খেলে আমাদের শরীরের জন্য দরকারি উৎসেচক পেপসিন (যে পেপসিন হজমে সাহায্য করে থাকে) ভেঙে যায়। 

২। অতিরিক্ত লেবুর রস পান করলে দাতের এনামেল ক্ষয় হয়ে যায়। 

৩। লেবু অতিরিক্ত খেলে অ্যাসিডিটির সম্ভাবনা অনেক বেড়ে যায়। তাছাড়াও বারবার পায়খানা পাওয়া, শরীর শুকনো হয়ে যাওয়ার মতো সমস্যা দেখা যায়।

৪। সাইট্রাস মাইগ্রেন বাড়িযে থাকে। সুতরাং যাদের মাইগ্রেডিনের সমস্যা রয়েছে তারা লেবু না খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়ে থাকে। 

৫। অত্যাদিক সাইট্রিক এসিড শরীরে আয়রনের মাত্রা বাড়িয়ে দেয়। এই মাত্র প্রয়োজনাতিরিক্ত হলে সমস্যা হতে পারে। 

আরও পড়ুন -

লেবুর উপকারিতা ও অপকারিতা কি পোষ্ট থেকে লেবুর উপকারিতা ও লেবুর অপকারিতা জানতে পেরেছেন। আমাদের ব্লগ সাইটটি যদি আপনাদের উপকারী মনে হয়ে তবে বুকমার্ক করে রাখবেন।